যুক্তরাষ্ট্রে যেতে পারছে না ১৫০০ শিক্ষার্থী

31

তাদের বেশির ভাগই যুক্তরাষ্ট্র সরকার বা বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাবৃত্তি পেয়েছেন। প্রস্তুতিও নিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্র যাওয়ার। কিন্তু করোনার প্রকোপ শুরু হওয়ায় আটকে যান। এমন প্রায় দেড় হাজার শিক্ষার্থী এখনো অনিশ্চয়তায় সময় কাটাচ্ছেন। কারণ যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশে ভিসা আবেদন নেয়া শুরু করলেও নতুন শিক্ষার্থীদের ভিসা আবেদন নেয়া হচ্ছে না (এফ-ক্যাটাগরি)। প্রাণঘাতী করোনায় স্থবির বিশ্বব্যবস্থা। তবে ধীরে ধীরে খুলতে শুরু করেছে সেই দুয়ার। ইউএস অ্যাম্বাসি থেকে নিয়মিত ভিসা বন্ধ রয়েছে।

সেইসঙ্গে বন্ধ রয়েছে শিক্ষার্থীদের নতুন ভিসা আবেদন। সম্প্রতি শিক্ষার্থীদের ভিসা দিলেও নতুন ভিসা প্রত্যাশী যারা আমেরিকায় নতুন শিক্ষার্থী হতে যাচ্ছেন তাদের ভিসা দেয়া হচ্ছে না বলে দাবি করেন তারা।
এই শিক্ষার্থীদের একজন রাকিবা সুলতানা বলেন, আগস্ট থেকে শুরু হওয়া ফল সেমিস্টারে আমরা যুক্ত হতে পারিনি। যার ফলে অধিকাংশ শিক্ষার্থী ২০২১ সালের জানুয়ারিতে শুরু হতে যাওয়া স্প্রিং সেমিস্টারের ওপর ভরসা করে আছে। কিন্তু ইউএস অ্যাম্বাসি নতুন করে ‘এফ’ ক্যাটাগরির ভিসা না দিলে এই সেমিস্টারেও অধ্যয়নের সুযোগ হাতছাড়া করবো। আর আমরা যোগ দিতে না পারলে এই সুযোগটা চলে যাবে প্রতিবেশী দেশ ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কার শিক্ষার্থীদের কাছে। কারণ তারা ইতিমধ্যে ‘এফ’ ক্যাটাগরির নতুন ভিসা পাচ্ছেন। তারা ভিসা পাচ্ছে কিন্তু আমরা তা থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। এটা আমাদের জন্য হতাশাজনক। এ বিষয়ে সরকারের তরফে উদ্যোগ নেয়ারও দাবি জানান এ শিক্ষার্থী।